Monday, 24 February 2014

শব্দকল্পদ্রুম

ধপাসের কিছু ব্যাপার কির'ম উলটো পথে হাঁটে।

"হাট্টিমাটিমটিম" বা "ভয় পেও না" নয়, ধপাসের প্রথম সুকুমার রায় হলো শব্দকল্পদ্রুম।

"থাস  থাস দুমদাম ছুনে লাগে খতকা" বলতে গিয়ে নিজেই কেঁপে মেপে একসা হতো।



"ছাই ছাই পন পন" বলে নিজেই কানে হাত চাপা দিয়ে চোখ বন্ধ করে ভয় পেয়ে অস্থির!...

কিন্তু তবু, ওটাই বলা চাই।



তারপর অবশ্য বাকি ছড়াগুলো কাটিয়ে সোজা "রবিন্দো" তে উত্তীর্ণ হয়ে গেল।

"বগোবান তুমি যুগে যুগে" এবং "আমারই চেতনার রঙে পান্না হল সবুজ, চুনি উঠলো রাঙা হয়ে"  (মা, পান্না সবুজ কেন? লালকে রাঙা কেন বলল?) তে আমাদের সকাল বিকেল ভরে উঠলো।

এবং অতঃপর -

মাম, রবিন্দো কোন কোন গান লিখেছে?

"মম চিত্তে", "পাগলা হাওয়ার", "মেঘের কোলে", "ফুলে ফুলে", ইত্যাদি, সব চেনা গানই দেখা গেল রবিন্দোরই লেখা।

- আচ্ছা মাম, "বুলবুল পাখি ময়না টিয়ে"-টাও কি "রবিন্দো" লিখেছে?



হ্যাঁ, ঠিকই ধরেছেন। ও এবারে জয় গোস্বামী শুরু করেছে।

"তোমার জন্য লিখতে পারি এক পৃথিবী" বলে বাড়ির সব সদ্য রঙ করা দেওয়াল গুলো ভরিয়ে দিচ্ছে আঁকিবুকিতে।



সবই ওর মায়ের দোষ!

একদম!!